ভারতের ভণ্ডগুরুদের দাপটের দেখুন নেপথ্যে কী আছে?

মোট দেখেছে : 67
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

কেউ নিজেকে বলছেন 'মেসেঞ্জার অফ গড' বা 'ঈশ্বরের দূত'। কেউ সরাসরি নিজেকেই 'ভগবান' বলে দাবি করছেন। তাঁদের কারো বয়স ৪০, তো কারো ৭৫। তবে ভগবানই হন কিম্বা ঈশ্বরের দূত, দেখা যাচ্ছে তাঁদের অনেকেরই পথ শেষ পর্যন্ত এসে মিলে যাচ্ছে ওই ধর্ষণ, অপহরণ, খুন ইত্যাদির মতো ঘটনায়। সেই সঙ্গে তাঁদের, জমি জবর দখল করা, 'নারী পাচার,' 'শিশু পাচার', 'সেক্স র‌্যাকেট' চালানোর খবরও প্রকাশিত হচ্ছে।

কেউ নিজেকে বলছেন 'মেসেঞ্জার অফ গড' বা 'ঈশ্বরের দূত'। কেউ সরাসরি নিজেকেই 'ভগবান' বলে দাবি করছেন। তাঁদের কারো বয়স ৪০, তো কারো ৭৫।

তবে ভগবানই হন কিম্বা ঈশ্বরের দূত, দেখা যাচ্ছে তাঁদের অনেকেরই পথ শেষ পর্যন্ত এসে মিলে যাচ্ছে ওই ধর্ষণ, অপহরণ, খুন ইত্যাদির মতো ঘটনায়। সেই সঙ্গে তাঁদের, জমি জবর দখল করা, 'নারী পাচার,' 'শিশু পাচার', 'সেক্স র‌্যাকেট' চালানোর খবরও প্রকাশিত হচ্ছে।

হায়, তাঁরা এই সমস্ত কু-কর্মই করে চলেছেন 'ঈশ্বরের দূত' হয়ে?

যদিও ধর্ষণের অভিযোগ উঠলেই, ডেরা সচ্চা সৌদা'র প্রধান 'গুরমিত রাম-রহিম সিং' বা রাজস্থানের 'ফলাহারী বাবা'র মতো অনেক 'ধর্মগুরু'ই তৎক্ষণাৎ নিজেদের ইম্পোটেন্ট বা 'যৌন ক্ষমতাহীন' বলে দাবি করে বসছেন।

তবে ওই দাবি তেমন ধোপে টিকছে না। কারণ দুটি ধর্ষণের দায়ে ইতিমধ্যেই রাম-রহিমের ২০ বছরের হাজতবাসের সাজা হয়েছে। আপাতত তিনি জেলের ঘানি টানছেন।

অবশ্য তাতে কি? লজ্জা-ঘৃণা-ভয় কোনটাই যে এইসব 'সাধু বাবা' বা 'ধর্মগুরু'দের তেমন থাকে না, পদে পদে তার প্রমাণ তাঁরা নিজেরাই দিয়ে যাচ্ছেন। এখন দেখছি, এই আধুনিক 'গডম্যান'দের নামের সঙ্গে 'রকস্টার বাবা', 'ডিস্কো বাবা'র মতো বিশেষণও যোগ হচ্ছে।

আরো দেখুন

সর্বশেষ ফটো